অন্যান্য

তারাগঞ্জে মাদ্রাসা শিক্ষিকাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টায় থানায় মামলা

  তারাগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধিঃ  7 November 2020 , 7:11:27 প্রিন্ট সংস্করণ

ধর্ষণ Rape নারীধর্ষণ বলাত্কার আপত্তিজনক chaild abuse শিশু শ্লীলতাহানি

রংপুরের তারাগঞ্জে প্রেমের প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় এক শিক্ষিকাকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, শনিবার(৭ নভেম্বর) দুপুরের দিকে ঘটনাটি ঘটে তারাগঞ্জ উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের প্রামাণিকপাড়া গ্রামের নুহ হকের কলেজ পড়ুয়া ছেলে আশরাফুল ইসলাম বদরগঞ্জ উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের এক মহিলা কওমী মাদ্রাসার ওই শিক্ষিকা প্রেমের প্রস্তাব দেয়।

কিন্তু মেয়েটি এতে রাজি হয়নি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মাদ্রাসার পথিমধ্যে আশরাফুল মেয়েটিকে নানাভাবে উত্যক্ত করতো।

ঘটনার দিন গত শুক্রবার দুপুরের দিকে ওই শিক্ষিকা ওষুধ কেনার জন্য একই এলাকার চিলাপাক বাজারে যাচ্ছিলেন।

পথিমথ্যে আশরাফুল ইসলাম তার পথরোধ করে। এ নিয়ে ওই শিক্ষিকাকে আটক করে বাকবিতণ্ডা শুরু করে। এসময় মেয়েটি কৌশলে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে আশরাফুল তাকে জাপটে ধরে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

মেয়ের মামা অভিযোগ করে বলেন, ‘মেয়েটি গত কয়েকদিন ধরে অসুস্থ ছিল। ঔষুধ কিনতে যাওয়ার পথে তাকে আটক করে শ্লীলতাহানি ও শ্বাসরোধের চেস্টা চালায় আশরাফুল।

হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ বাবুল জানান, এ ঘটনায় মেয়ের পরিবারকে থানায় মামলা দেওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মাদ্রাসার মুহতামিম (সুপার) আব্দুস সাত্তার বলেন, অসুস্থ থাকার কারণে মেয়েটি ছুটিতে ছিল। সে খুবই ভদ্র ও নম্র স্বভাবের। তার সঠিক বিচার প্রত্যাশা করছি।

 

উপ-পরিদর্শক(এসআই) আসাদুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সত্যতা পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে।

তারাগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় থানায়  মামলা হয়েছে। যুবককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

error: ছি ! ছি !! কপি করার চেষ্টা করবেন না ।