July 7, 2022, 2:20 pm
শিরোনামঃ
তিনদিন নাটকীয়তার পর অবশেষে পঁচা ও দুর্গন্ধযুক্ত চাল ফেরত নিলেন খাদ্য বিভাগ উলিপুরে বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন উলিপুরে বন্যার্তদের মাঝে খাদ্য সহায়তা তারাগঞ্জ উপজেলায় বিদ্যুৎ লোডশেডিংয়ে জনজীবন বিপর্যস্ত- জ্বালানি সংকটে উৎপাদনে বিঘ্ন উলিপুরে পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্ট্রের পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণ বাংলাদেশ কেমিস্টস্ এন্ড ড্রাগিস্টস্ সমিতি তারাগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি আখতার সম্পাদক এমদাদুল কৃষি কর্মকর্তা উর্মি তাবাসসুমের অবহেলায় ঝিমিয়ে গেছে তারাগঞ্জের কৃষিখাত লালমনিরহাটে প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যেও এমপি’র উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন রাণীশংকৈলে কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি রহিম-সাধারণ সম্পাদক দ্বিগেন্দ্র উলিপুরে ৩’শ বন্যার্ত পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

মই বেয়ে উঠতে হয় ৫কোটি টাকার সেতুতে

এস,কে সাহেদ, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ
  • সময় : Thursday, May 26, 2022
  • 31 ভিউ
লালমনিরহাট জেলা সদরের অদূরেই দুড়াকুটি গ্রামে রত্নাই সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে প্রায় ৬ মাস আগে। কিন্তু এখনো নির্মাণ করা হয়নি সংযোগ সড়ক। ৫কোটি টাকায় নির্মিত ওই সেতুতে মই বেয়ে উঠতে হয়। ফলে সেতুটি সুফলের পরিবর্তে দুর্ভোগে পরিনত হয়েছে স্থানীয়দের।

জানা যায়, সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের ৭টি গ্রামের প্রায় ১৫ হাজার মানুষ এ পথ দিয়ে চলাচল করে। রত্নাই সেতুর পশ্চিম দিকে দুড়াকুটি, কর্ণপুর ও ফুলগাছ গ্রাম আর পূর্ব দিকে রয়েছে মেঘারাম, ইটাপোতা, বুমকা ও খারুয়া গ্রাম। সেতুর দুদিকে হাটবাজার ও স্কুল-কলেজ থাকায় ওই ৭ গ্রামের লোকজনকে এ পথে চলাচল করতে হয়।
এছাড়াও আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ী, ভেলাবাড়ী ও দুর্গাপুর ইউনিয়নের মানুষজনও এ পথ দিয়ে যাতায়াত করেন। বর্ষাকালে এসব এলাকার লোকজনকে বিকল্প পথে ৬/৭ কিলোমিটার পথ ঘুরে চলাচল করতে হয়।
স্থানীয়রা জানান, সেতুর পূর্ব ও পশ্চিম দিকের সংযোগ সড়ক নির্মাণের জন্য প্রায় ৩০/৩৫ শতক জমি প্রয়োজন। সেতুর দুপাশের জমি ব্যক্তিগত মালিকানার। ওই জমির দাম নিয়ে প্রশাসন ও জমির মালিকদের মধ্যে মতবিরোধ হয়েছে। ফলে সেতু নির্মাণ হলেও সংযোগ সড়ক নির্মাণ হচ্ছে না। এলজিইডি সূত্র জানায়, রত্নাই নদীর ওপর ১২০ মিটার দীর্ঘ ও ৮ মিটার চওড়া এ সেতু নির্মাণের ব্যয় ধরা হয় ৫ কোটি ২৪ লাখ ৩২ হাজার টাকা। এক বছর মেয়াদী এ কাজ ২০১৬ সালের ২৫ অক্টোবর শুরুর তারিখ ছিল। কিন্তু নানা কারণে নির্মাণকাজ সঠিক সময়ে শুরু হয়নি। ফলে নির্ধারিত সময়ের চার বছর পর ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে সেতুর নির্মাণকাজ সমাপ্ত হয়।
স্থানিয় বাসিন্দা আবুল মিয়া বলেন, অনেক বছর অপেক্ষায় থেকে আমরা ব্রিজ পাইছি। এখন রাস্তা নাই।
এলাকাবাসীর সমস্যা নিরসনে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আহবানও জানিয়েছেন তিনি।
এ বিষয়ে মোগলহাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান বলেন, রত্নাই সেতুর নির্মাণ কাজ নিয়ে শুরু থেকেই বিভিন্ন ধরনের সমস্যা ছিল। এখন সংযোগ সড়কের জমি নিয়ে সমস্যা হয়েছে। তবে সামনে বর্ষাকাল, দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হলে জনগনের চলাচলের দুর্ভোগ কমবে।
লালমনিরহাট এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মনজুর কাদের বলেন, রত্নাই সেতুর দুই দিকে মোট ১১৫ মিটার সংযোগ সড়ক নির্মাণ করতে হবে। এ জন্য ব্যয় হবে প্রায় ৩৪ লাখ টাকা। সংযোগ সড়কের জন্য জমি ক্রয় নিয়ে কিছু সমস্যা আছে। তা সমাধানের জন্য আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি।

সেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও খবর
© All rights reserved © 2019 LatestNews
Designed By BONGGONEWS.COM
themesba-lates1749691102