সারাদেশ

মিঠাপুকুরে ধানক্ষেত বিনষ্ট ও মারপিটের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা

  আমিরুল কবির সুজন,  মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধি 6 September 2020 , 7:40:43 প্রিন্ট সংস্করণ

মিঠাপুকুরে ধানক্ষেত বিনষ্ট ও মারপিটের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা

মিঠাপুকুরে ধানক্ষেত বিনষ্ট, মারপিট ও শিলতাহানির ঘটনায় ভুক্তভোগী কৃষক রফিক মিঠাপুকুর থানায় ১২ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। দায়েরকৃত মামলায় আসামীদের গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠায় পুলিশ। কিন্তু আসামী রবিউল ইসলাম (৩৫) জামিনে বেরিয়ে আসার পথে ছড়ান বাজারে ট্রোলির সাথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার ঘতনাটিকেই পুজি করে কৌশলে উল্টো মামলা করে কৃষক বাবু মিয়া, আসের আলী, রফিক উদ্দিনসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে রবিউল ইসলাম একটি মামলা করেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বড়বালা ইউনিয়নের কেশবপুর গ্রামে। বিষয়টি তদন্ত চলছে বলে জানান পুলিশ।

সরেজমিনে পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ২১ আগষ্ট কৃষক রফিক উদ্দিন তার সদ্য রোপণকৃত ধানক্ষেতে হাঁস দেখতে পেয়ে রাজু মিয়া হাসগুলোকে তাড়িয়ে দিয়ে আসার পথে রবিউল ইসমলাম সহ তার লোকজন উক্ত যুবককে বেঁধে বেধড়ক মারপিট করতে থাকলে এ সময় এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে চাচা, ভাতিজা, গ্রামবাসী এগিয়ে আসলে রবিউলের লোকজন বেধড়ক মারপিট করে ’গুরুত্বর আহত করে। পরবর্তীতে লোকজন আহতদের ’উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মিঠাপুকুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। এ ঘটনায় রফিক মিয়া বাদী হয়ে মিঠাপুকুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে ওই মামলার আসামী জামিনে এসে ছড়ান বাজারে রবিউল সহ ৩ জন ট্রলির সাথে ধাক্কা লেখে আহত হন এবং প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে তারা চলে যায়। ঘটনার ২ দিন পর রবিউল ইসলাম বাদী হয়ে রফিক সহ ১৬ জনকে আসামী করে মিঠাপুকুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার এজাহারে উল্লেখ রয়েছে আসামীরা একটি হঁাস মেরে ও ১টি ভেড়া হত্যা করে। যার ক্ষতি পূরণ ৮ হাজার টাকা এবং রড দিয়ে মাথা ও পায়ের হাটু ভাঙ্গা ও ফাটিয়ে দেয়।

এলাকায় গিয়ে জানা যায় হঁাস মেরে ফেলা ও ভেড়া হত্যা মারপিটের কোন ঘটনাই কেশবপুরে ঘটে নাই। মিঠাপুকুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুজ্জামান জানান, ঘটনার তদন্ত চলছে।

আরও খবর

Sponsered content

error: ছি ! ছি !! কপি করার চেষ্টা করবেন না ।