সারাদেশ

সড়কের বেহাল দশা-পথচারীর দুর্ভোগ রসিক মেয়রের দৃষ্টি কামনা

  বঙ্গ ডেস্কঃ 24 September 2020 , 1:13:07 প্রিন্ট সংস্করণ

সড়কের বেহাল দশা-পথচারীর দুর্ভোগ রসিক মেয়রের দৃষ্টি কামনা

অল্প বৃষ্টি হলেই রাস্তার মধ্যে পানি জমে যায়। ওই পানি রাস্তার উপরেই জমে থাকে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন প্রতিনিয়ত জনসাধারণ ।

দেড় বছর আগে রংপুর সিটি কর্পোরেশনে রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণের জন্য ছকসহ আবেদন করা থাকলেও, এখন পর্যন্ত কোন প্রকার কার্যক্রম নেই। হালকা বৃষ্টিতে এমন ভাবে রোডে পানি জমে যে চলাফেরা, বাজার-
খরচ, নামাজ, অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হতে শুরু করে সমস্ত ক্ষেত্রে কাজের যাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

চাকুরি জীবি ও ব্যবসায়ীরা ওই রাস্তা পার হয়ে অফিসে যেতে হয়। তাই এলাকাবাসী সকলেই রসিক মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা সহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

বুধবার দুপুরে রংপুর নগরীর স্টেশন রোড সংলগ্ন পীরপুর রোড নং-১ আজাদ গ্যারেজের সামনে ও কাউন্সিলর রোড-০৩, আলমনগর খামার পাড়ার এলাকার এমনটিই চিত্র দেখা গেছে।

দৈনিক পরিবেশের প্রকাশক ও সম্পাদক ফজলুল হক বলেন, আমার বাসার সামনের ঘটনা আমি বহুবার সংশ্লিষ্টদের জানিয়েছি কিন্তু কোন কাজ হয় নি।

পীরপুর রোডের মুদি দোকানী লিটন বলেন,
রাস্তায় একটু বৃষ্টি হলেই পানি জমে চলাচল করা যায় না, সেই পানি এক হতে দু-সপ্তাহ পর্যন্ত জমেই থাকে। এছাড়াও জুয়েল, শরফুদ্দিন, মুদি দোকানী জামাল বলেন, হালকা বৃষ্টিতে এমন ভাবে রোডে পানি জ্বমে যে চলাফেরা, বাজার-খরচ, নামাজ, অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হতে শুরু করে সমস্ত ক্ষেত্রে কাজের সমস্যা হয়।

এ ব্যাপারে ২৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হারুন অর রশিদ বলেন, স্টেশন রোড পীরপুর রোড-১ ও আমার বাসার রোড-৩ এই দুটি রোডে হালকা বৃষ্টি হলেই পুরো রাস্তার মধ্যে পানি জমে যায়।

রাস্তাদুটি এখন সংস্কার প্রয়োজন। আমি এখন থেকে দেড় বছর আগে রংপুর সিটি
কর্পোরেশনে রাস্তা ও ড্রেন নির্মাণের জন্য ছকসহ আবেদন করেছি, এখন পর্যন্ত কোন প্রকার কার্যক্রম নেই। চলতি মৌসুমের বর্ষাকাল শেষ হলেই কাজ শুরু হবে বলে মেয়র মহাদয় আমাকে জানিয়েছেন।

আরও খবর

Sponsered content

error: ছি ! ছি !! কপি করার চেষ্টা করবেন না ।